# শেখার কোন শেষ নেই। বাড়ীই এখন নতুন বিদ্যালয়, জিনিওইশেখার Revision ক্লাস গুলো এখন লাইভ এ। আরো জানতে হলে

Read more

সম্বন্ধে

স্কুলনেট ইন্ডিয়া লিমিটেড (স্কুলনেট)

যেকোনো শিক্ষন প্রক্রিয়াকে সচল রাখার জন্য শুধুমাত্র বিদ্যালয়ের পরিমন্ডলে আবৃত না থেকে - আরও নানা প্রযুক্তি তথা সংস্থার সহযোগিতায় পঠন পাঠন প্রক্রিয়াকে আরও উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। বিদ্যালয়ের ঐতিহ্যমন্ডিত পাঠক্রমকে সহজ, সরল ও আকর্ষণীয় করে তুলে সকলের সামনে প্রকাশিত করার ক্ষেত্রে যে প্রতিষ্ঠানটি অগ্রণীভূমিকা গ্রহণ করেছে , সেটি হল "স্কুল নেট ইন্ডিয়া লিমিটেড"।

স্কুল নেট ইন্ডিয়া লিমিটেড শিক্ষা ক্ষেত্রে এক গুরুত্বপূর্ণ স্থান অধিকার করে রয়েছে। শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়ন তথা শিক্ষার্থী, শিক্ষক , শিক্ষিকা, অভিভাবক ও বিশ্বের প্রতিটি সম্প্রদায়ের সহযোগিতায় নিজেকে নিয়জিত করেছে। এটি শুধুমাত্র একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান নয় , কি ভাবে শিক্ষাক্ষেত্রের মান আরও উন্নত করা যায় সেই লক্ষ্যে সর্বতভাবে নিযুক্ত রয়েছে। স্কুল নেট ইন্ডিয়া শিক্ষার বিবর্তন এর ক্ষেত্রে নানা ভাবে সহযোগিতা করে থাকে। শিখন - শিক্ষন দক্ষতা বৃদ্ধি ও অভিজ্ঞতা সঞ্চয়ের জন্য স্কুল নেট ইন্ডিয়া নানা তথ্য , যোগাযোগ ও প্রযুক্তি সরবরাহ করে থাকে , স্কুলে ব্যবহৃত নানা প্রযুক্তি ব্যবহারের ক্ষেত্রেও এটি বিশেষ ভাবে সহযোগিতা করে থাকে।

শিক্ষার পরিবেশ সঠিক ভাবে পরিচালনা করা এবং শিক্ষার মান উন্নত করার জন্য স্কুল নেট ইন্ডিয়া বিশেষ কিছু সংস্থা তথা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সঠিক পদ্ধতিতে কাজ করে চলেছে। এগুলি হল যথাক্রমে -

  • কেন্দ্রীয় সরকারী নানা সংস্থা
  • রাজ্য সরকারী নানা সংস্থা
  • সরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
  • বেসরকারী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
  • আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থা

স্কুল নেট ইন্ডিয়া উন্নয়নের চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছে গিয়েছে। বর্তমানে স্কুল নেট ইন্ডিয়ার সমাধান গুলি প্রায় ৩০০০০ এরও বেশি স্কুলে পৌঁছে গিয়েছে। ২০০০০ + কম্পিইটার ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে , ৫০০০০০ এরও বেশি শিক্ষিকা শিক্ষককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে স্কুল নেট ইন্ডিয়ার মাধ্যমে। এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান , কর্পোরেট সংস্থা গুলিতে আজ স্কুল নেট ইন্ডিয়ার সমাধানগুলি বিশেষ ভাবে সমাদৃত হচ্ছে। আমাদের সহযোগী সংস্থার সাহায্যে আমরা ভারতের ২৬ টি রাজ্যের ১.৫ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছে গিয়েছি।আমরা আফ্রিকা ও দক্ষিণ এশিয়ার ১৭টি দেশেও উপস্থিত রয়েছি যেখানে আমরা প্রযুক্তি ভিত্তিক শিক্ষা, দক্ষতা বিকাশ, জীবিকা নির্বাহ, টেকসই কৃষি এবং এমএসএমইগুলিতে ক্লাস্টার বিকাশে পরিষেবা প্রদান করি।

বর্তমানে স্কুল নেট ইন্ডিয়া বিশ্বের বহু স্থানে একটি প্রতিষ্ঠিত নাম। ভারতের বিভিন্ন রাজ্য, এমনকি আফ্রিকা ও দক্ষিণ এশিয়ার বিস্তারিত অংশ স্কুল নেট ইন্ডিয়ার বিভিন্ন প্রযুক্তির দ্বারা বিশেষ ভাবে উপকৃত হয়ে থাকে।

ই ফ্রেম ইনফোমিডিয়া

ইফ্রেম ইনফোমিডিয়া - এক্সেল ইনফোকম গ্রুপের অন্তর্গত একটি তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা , এক্সেল ইনফোকম বিগত ২৫ বছর ধরে আইটি কর্মশক্তি উন্নয়ন ও প্রশিক্ষণ বিভাগ ১ লক্ষাধিক শিক্ষার্থীকে সফলভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। আমরাই প্রথম সংন্থা যারা ২৫ বছর আগে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের সাথে সরকারী-বেসরকারী অংশীদারিতে শিক্ষা ও দক্ষতা প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করেছি । বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গব্যাপি প্রস্শিক্ষন প্রদান করার জন্য ৫০০ এরও বেশি কর্মচারী এবং ৫০,০০০ বর্গফুট এর বেশি কর্মোক্ষম জায়গা রয়েছে।

আমাদের মাল্টিমিডিয়া ডেভেলপমেন্ট বিভাগটি সমগ্র পূর্ব অঞ্চলের শীর্ষস্থানীয় ও স্বতন্ত্র অবস্থান লাভ করে। ই-লার্নিং সলিউশনস, মাল্টিমিডিয়া পরিবেশন , ট্রেন্ড-সেটিং ক্রিয়েটিভস, অডিও-ভিজ্যুয়ালস, অ্যানিমেশন টেকনোলজিস, ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, অগমেন্টেড রিয়েলটি (এআর) এবং ভার্চুয়াল রিয়েলটি (ভিআর) বিষয়বস্তুতে দক্ষ হয়ে আমরা একাধিক পরিষেবা প্রদানকারী হিসাবে পরিগণিত হয়েছি।

বিগত 15 বছর ধরে, ইফ্রেম ইনফোমিডিয়া তার জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্লায়েন্টগুলি যেমন সৃজনশীলতা এবং নতুনত্বের সাথে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে উন্নত সমাধান সরবরাহ করে আসছে। ইউনিলিভার, হিন্দুস্তান ইউনিলিভার, আইটিসি লিমিটেড, অ্যামাজন, কোকা কোলা ইন্ডিয়া, CEAT টায়ারস, টিসিসিও - কানাডা, ভেসুভিয়াস ইন্ডিয়া কয়েকটি নাম উল্লেখযোগ্গ্য।

বহু- বৃহত কর্পোরেশনগুলিকে তাদের ই-লার্নিংয়ের প্রয়োজনে সেবা দেওয়া ও দীর্ঘ দু 'দশক দক্ষতার সাথে কাজ করে আমরা পশ্চিমবঙ্গের স্কুল শিশুদের জন্য প্রথমবারের মতো ডিজিটাল ই-লার্নিং শিক্ষামূলক সামগ্রীটি ব্র্যান্ড ‘ইশেখা’ এর অধীনে তৈরি করেছি।

ইশেখা ই-লার্নিং সামগ্রীটি পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ, পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ পাঠ্যক্রম অনুসরণ করে তৈরি করা হয়েছে।

ইশেখার অন্তর্গত ই-লার্নিং সামগ্রীগুলি পড়ুয়ারা খুব ভালভাবে গ্রহণ করেছে এবং এই বাংলা ই-লার্নিং সামগ্রীগুলি শিক্ষকদের কাছে আজ সমান ভাবে সমাদৃত হয়েছে। আমাদের বাংলা ভাষায় তৈরী মাল্টিমিডিয়া ই-লার্নিং সামগ্রীগুলি পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে 7000 টিরও বেশি সরকারী এবং সরকারী সহায়তা প্রাপ্ত স্কুলে ব্যবহৃত হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার কোভিড -১৯ মহামারীর সময়ে পশ্চিমবঙ্গ শিক্ষা দপ্তরের " বাংলার শিক্ষা " পোর্টালের মাধ্যমে পরিচালিত অনলাইন ক্লাসগুলিতে ইশেখা ই-লার্নিং সামগ্রীগুলি ব্যবহার করে শিক্ষ্যার্থীদের সামনে এক নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেছে

একই ইশেখা ই-লার্নিং সামগ্রীগুলি এখন শিক্ষার্থীদের জন্য তাদের মোবাইল ডিভাইস বা কম্পিউটারে জিনিও ও -ই-শেখার মাধ্যমে উপলব্ধ।